সকালে উঠে যদি আয়নায় নিজের দিকে তাকিয়ে দেখেন ত্বক মলিন দেখাচ্ছে, ত্বকে কালচে ভাব চলে আসছে এবং তেলতেল ভাবের জন্য ত্বক কালো দেখাচ্ছে তাহলে মনটাই খারাপ হয়ে যায়। বিশেষ করে যদি সেদিন কোনো উৎসব বা অনুষ্ঠান থাকে। অনেকেরই খুব দ্রুত ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে নেয়ার কৌশল একেবারেই জানা নেই। কিন্তু আপনি খুব সহজেই তাৎক্ষণিকভাবে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে নিতে পারেন, সেই সাথে কাটিয়ে ফেলতে পারেন ত্বকের মলিনতাও। ভাবছেন কীভাবে? চলুন তাহলে শিখে নেয়া যাক খুব সহজ উপায়গুলো।

তাৎক্ষণিকভাবে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে

১) লেবু ও মধুর মাস্ক

১ টেবিল চামচ মধু নিন, এতে ১ টেবিল চামচ লেবু খুব ভালো করে মিশিয়ে ফেলুন। এরপর এই মিশ্রণটি পুরো ত্বকে ভালো করে লাগান। ৫ মিনিট ম্যাসেজ করে নিন। এরপর ১৫ মিনিট এভাবে রেখে দিন। ১৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ত্বক ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। লেবু ত্বক ব্লিচ করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় এবং মধু ত্বক ময়েসচারাইজ করে ত্বকে তাৎক্ষণিক উজ্জ্বলতা এনে দিতে পারে।

২) টমেটোর মাস্ক

ঘরে লেবু বা মধু না থাকলে চিন্তা করবেন না। টমেটো আছে তো? এতেই বেশ ভালো কাজ হবে। একটি মাঝারি আকারের টমেটো মাঝখানে দুখণ্ড করে নিয়ে কাটা অংশ দিয়ে পুরো ত্বক ভালো করে ঘষে নিন। ভালো করে ঘষে নিয়ে ১৫ মিনিট এভাবেই রেখে ত্বকে কাজ করতে দিন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভালো করে ত্বক ধুয়ে ফেলুন। টমেটোর ব্লিচিং উপাদান ত্বকে তাৎক্ষণিক উজ্জ্বলতা এনে দেবে। সেই সাথে মলিনতাও দূর হয়ে যাবে।

৩) চালের গুঁড়ো ও দুধের মাস্ক

২-৩ টেবিল চামচ চালের গুঁড়ো নিন। এতে পরিমাণ মতো দুধ মিশিয়ে ঘন পেস্টের মতো তৈরি করে নিন। যদি গুঁড়ো দুধ ব্যবহার করতে চান তাহলে সমপরিমাণ গুরি দুধ নিয়ে পরিমাণ মতো পানি মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করে ফেলুন। এই মিশ্রন ত্বকে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট রেখে হাতের আঙুল দিয়ে ত্বক ঘষে নিন ভালো করে। মাস্কটি ঘষে নেয়ার ফলে আপনাআপনিই ঝড়ে যাবে। এতে করে ত্বকের উপরিভাগে জমে থাকা ময়লা ও মরা কোষ দূর হয়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা তাৎক্ষণিকভাবেই বৃদ্ধি পাবে।