শিরোনামটা পড়ে অবাক হচ্ছেন? ভাবছেন আলু আর রসুন দিয়ে কীসের রূপচর্চা, এগুলো তো খাবার আর রান্নায় কাজে লাগে! হ্যাঁ, এই সবজি আর মসলাই হতে পারে সুন্দর ত্বক পাবার এক দারুণ হাতিয়ার!

ঘরে এই সাধারণ জিনিসগুলোর ব্যবহারে দূর হতে পারে আপনার নানান রকমের ত্বকের সমস্যা, যেমন- ঘাড়ে ও গলায় কাল দাগ, ব্রণ, অকালে বলিরেখা পড়া ইত্যাদি। কিন্তু কিভাবে ব্যবহার করবেন এগুলো? আসুন, জেনে নিই বিস্তারিত ভাবে।

ত্বকের যত্নে আলু রসুনের জুটি

ত্বকের যত্নে আলু রসুনের জুটি

ত্বকের যত্নে আলু রসুনের জুটি

ত্বকের যত্নে আলু রসুনের জুটি-

রসুন সৌন্দর্য রক্ষাতেও পারদর্শী:

রসুনে আছে ভরপুর ভিটামিন এ, সি ও ই যা ব্রণর সমস্যা দূর করা সহ ত্বকের আরও অনেকগুলো সমস্যা দূর করতে দারুণ কার্যকর।

ব্রণর সমস্যা দূর করতে একটি রসুনের কয়েকটি কোয়ার খোসা ছাড়িয়ে অল্প থেঁতো করে তার রসটা মুখের ব্রণর ওপর আলতো করে ঘষুন, দশ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ব্রণর জীবাণু নাশক উপাদান অচিরেই ব্রণটিকে বিলুপ্ত করে দেবে আস্তে আস্তে।

অকাল বলিরেখা প্রতিরোধ করে টানটান ত্বক পাবার জন্য হাফ চামচ কর্ণ ফ্লাওয়ার, হাফ চামচ চন্দন গুঁড়োর সঙ্গে সামান্য লেবুর রস, তাজা রসুন বাটা ও কাঁচা দুধ মিশিয়ে ফেসমাস্ক তৈরি করুন৷ তারপর সেটা সপ্তাহে একদিন করে ব্যবহার করুন। নিমেষে ফল দেখতে পাবেন৷

আলুতে পান উজ্জ্বল ত্বক:

আলু কেবল সবজি নয়, আলু দিয়ে দারুণ ফেসমাস্ক ও স্ক্রাবারও তেরী করা সম্ভব। বিশেষ করে শুষ্ক ত্বকের জন্য আলু খুব ভালো একটি উপাদান।

মুখ পরিষ্কার করার জন্য একটি আলুর একটা ফালি কেটে নিয়ে তা থেঁতো করে নিন, তারপর ভালো করে চটকিয়ে মুখে মাখুন। চার বা পাঁচ মিনিট ম্যাসাজ করবেন। ব্যাস, তারপর দেখুন কি পরিষ্কার একটা ঝকঝকে চেহারা ফুটে ওঠে আপনার।

কালো দাগ দূর করার জন্য আলু বাটা কিংবা আলুর রস নিন, তার সঙ্গে একটু কাঁচা দুধ মেশান। এই মিশ্রণ ঘাড়, গলা, ইত্যাদি স্থানে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। কিছুদিন ব্যবহারেই দাগ-ছোপ উড়ে যাবে একেবারে।