কেক তৈরি করার জন্য ওভেন দরকার হয়। এ কারণে ইচ্ছে থাকলেও অনেক রাঁধুনি কেক বেক করতে পারেন না। ওভেন না থাকলেও বাড়িতে যদি থাকে একটি প্রেশার কুকার, তবে সহজেই আপনিও তৈরি করে ফেলতে পারেন মজাদার একটি কেক। এই রেসিপির আরেকটি দারুণ ব্যাপার হলো এতে একটিও ডিম দরকার হয় না, ফলে যারা ডিম পছন্দ করেন না তারাও নিশ্চিন্তে তৈরি করে খেতে পারেন।

প্রেশার কুকারে ডিম ছাড়া ভ্যানিলা কেকের রেসিপি

প্রেশার কুকারে ডিম ছাড়া ভ্যানিলা কেকের রেসিপি

প্রেসার কুকারে ডিম ছাড়া ভ্যানিলা কেকের রেসিপি

উপকরণ

–   ময়দা এক কাপ

–   বেকিং পাউডার আধা চা চামচ

–   বেকিং সোডা সিকি চা চামচ

–   লবণ এক চিমটি

–   মিহি চিনি সিকি কাপ

–   কনডেন্সড মিল্ক আধা কাপ

–   মাখন সিকি কাপ

–   দুধ আধা কাপ

–   ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট দেড় থেকে দুই চা চামচ

–   কাজু বাদাম ২/৩ টেবিল চামচ কুচি করা

–   কিসমিস ১/২ টেবিল চামচ

প্রণালী

১) ছয় ইঞ্চির একটা কেকের টিনের ভেতরে মাখন মাখিয়ে নিন। প্রেশার কুকারে এক থেকে দেড় কাপ বালু দিয়ে ঢাকনা বন্ধ করে দিন। ঢাকনা থেকে অবশ্যই রাবার এবং সিটি দেবার ওজন খুলে রাখবেন। উঁচু তাপে পাঁচ মিনিট গরম করে নিন।

২) একটি বোলে মিহি চিনি, কনডেন্সড মিল্ক এবং মাখন একসাথে মিশিয়ে নিন একটি বিটার দিয়ে। একদম গলে যাওয়া পর্যন্ত বিট করে নিন।

৩) এরপর ময়দা, বেকিং সোডা এবং বেকিং পাউডার এই মিশ্রণে দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। মাঝে মাঝে ঢেলে মিশিয়ে নিন দুধটুকু।

৪) এরপর যোগ করুন ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট, কাজুবাদাম এবং কিসমিস। কিন্তু এগুলো দিয়ে বেশি নাড়বেন না।

৫) কেক প্যানের ভেতরে ঢেলে দিন পুরো মিশ্রণটি। ওপরে ছড়িয়ে দিন কিছুটা কাজুবাদাম এবং কিসমিস।

৬) গরম হয়ে থাকা প্রেশার কুকারের ভেতরে একটি ট্রে বসিয়ে নিন। ঢাকনা লাগিয়ে ২৫ মিনিট হালকা আঁচে রাখুন। এরপর একটি টুথপিক কেকের ভেতরে ঢুকিয়ে দেখুন রান্না হয়েছে কি না। টুথপিক পরিষ্কার বের হয়ে আসলে বুঝবেন কেক হয়ে গেছে।

৭) সাবধানে বের করে আনুন টিন। একটু ঠাণ্ডা হয়ে এলে উল্টো করে কেকটা বের করে আনুন।

টিপস:

–   অবশ্যই রাবার এবং ভালভ খুলে রাখবেন

–   প্রেশার কুকারের ভেতরে পানি দেবেন না

–   সবসময় প্রেশার কুকারের ভেতরে বেক করবেন না তাহলে এটা নষ্ট হয়ে যেতে পারে

–   এই কেক তৈরি করতে সময় লাগবে এক ঘণ্টার মতো। সহজেই পরিবেশন করতে পারবেন ৬-৮ জনকে।