হোয়াইটহেডস আর ব্ল্যাকহেডস অনেকেরই থাকে। ঠিক সময়ে এটি দূর করলে মুখে ব্রণ সব না সমস্যা দেখা দেয় না।মুখে থাকলে তা দেখতে বাজে’ও লাগে। হোয়াইটহেডস ও ব্ল্যাকহেডস হল এক ধরণের কমেডো(Comedo)। কমেডো ব্রণ ওঠার প্রাথমিক ধাপ। মুখের চামড়ায় পানি জমে থাকা লোমকূপগুলোকেই কমেডো বলে। যে কমেডোগুলো খোলা থাকে সেগুলো ব্ল্যাকহেডস আর যেগুলো ত্বকের নিচে ঢাকা থাকে সেগুলো হোয়াইটহেডস। সাধারণত হোয়াইটহেডস হলে ত্বকের লোমকূপে তেল, ব্যাকটেরিয়া ও মৃত কোষ বন্ধ বয়ে থাকে। এর ফলে মুখে সাদা বা হলদেরঙের আচিলের মত দেখা যায়। এখন জেনে নিন খুব সহজে ঘরে বসেই কিভাবে হোয়াইটহেডস থেকে মুক্তি পেতে পারেন- [wp_ad_camp_2]

হোয়াইটহেডস দূর করার কিছু উপায়

তৈলাক্ত ত্বকঃ 
১/তৈলাক্ত ত্বকে সবচেয়ে হয় হোয়াইটহেডস, তাই তৈলাক্ত ক্রিম বা ময়শ্চারাইজার লাগানো বন্ধ করুন ।
২/মুখে ১০ মিনিট ভাপ নিন এরপর পাতলা সুতি কাপড় দিয়ে যেখানে হোয়াইটহেডস আছে তা ভালো করে চাপ দিয়ে মুছে ফেলুন। ৩/যেখানে হোয়াইটহেডস আছে  সেখানে টমেটো লাগিয়ে রাখুন। ১০ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন করবেন এটি।
৪/একটি তুলার বল নিয়ে তাতে টি ট্রি অয়েল(Tea tree oil) মাখিয়ে নিয়ে হোয়াইটহেডস এর উপর লাগিয়ে রাখুন দিনে দুইবার
৫/১ চা চামচ মধুর সাথে আধা চা চামচ দারুচিনি গুড়া মিশিয়ে হোয়াইটহেডস এর উপর ১০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। দারুচিনির অ্যানটী-ব্যাক্টেরিয়াল গুণ হোয়াইটহেডস কমাতে সাবায্য করবে। দিনে দুইবার বাল্কা কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলবেন। ৬/মৃদু কোন ফেস ওয়াস ব্যববার করবেন মুখ পরিষ্কার করার জন্য।
৭/বেকিং সোডা ও পানি দিয়ে ঘন একটি মিশ্রণ তৈরী করুন এবং তা হোয়াইটহেডস এর উপরে শুকিয়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত লাগিয়ে রাখুন। এরপর মুখ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মুখে ভাপ নেয়ার পর হোয়াইটহেডস এর উপরে অ্যাপল সিডার ভিনেগার লাগিয়ে রাখুন ৫-১০ মিনিট।
৮/রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে একটু টুথপেস্ট নিয়ে তা হোয়াইটহেডস এর উপরে লাগিয়ে রাখবেন। সকালে উঠে দেখবেন হোয়াইটহেডস ছোট হয়ে গিয়েছে। কারণ টুথপেস্ট ত্বক শুষ্ক করে ফেলে, তাই হোয়াইটহেডস  যখন টুথপেস্টের সংস্পর্শে আসে তা টান পেয়ে ছোট হয়ে যায়।
নিয়মিত এর মধ্যে একটি উপায় অবলম্বন করলে আপনার হোয়াইটহেডস কমবে ।
সতর্কতাঃ
ভাপ নিতে সমস্যা হলে একটি রুমাল হাল্কা গরম পানিতে ভিজিয়ে চিপড়িয়ে নিয়ে মুখে চাপ দিয়ে লাগিয়ে রাখুন কয়েকবার। এতে লোমকূপ খুলে যাবে। এরপর হোয়াইটহেডস গুলো দুইটি আঙ্গুল দিয়ে চাপ দিয়ে ভেতরের শ্বাস বের করে ফেলুন। আঙ্গুল দিয়ে চাপ দিয়ে হোয়াইটহেডস রিমুভার’ও ব্যববার করতে পারেন। মেনিকিউর সেটের মধ্যে এই রিমুভার পাবেন। যেসব টুথপেস্টে সোডিয়াম লরিল সালফেট (Sodium loryl sulfate)আছে  তা মুখে লাগাবেন । এতে র‍্যাশ এর মত উঠতে পারেনা।

আমাদের পেজে লাইক দিতে ভুলবেন না।