চুলের যত্নে উপকারি ডিমের হেয়ার প্যাক

 Chuler Jotne Upokari Dimer Hair Pack

উপকরণ: ১।ডিমের কুসুম ২ টা ২।অলিভ অয়েল ২ টেবিল চামচ যদি চুল বেশি হয় তবে আপনি ডিমের কুসুম ও তেলের পরিমাণ বাড়িয়ে দিবেন। মনে রাখবেন ১ টি কুসুমের সাথে ১ টেবিল চামচ তেল যোগ হবে।

ব্যবহার বিধি: ১।ডিম ভেঙ্গে কুসুম ও সাদা অংশ আলাদা করে নিন। আপনার চুল যদি রুক্ষ হয় তবে শুধু কুসুম নিবেন। স্বাভাবিক চুলের অধিকারী ব্যক্তি এই প্যাক ব্যবহার করলে সম্পূর্ণ ডিম নিবেন অর্থাৎ সাদা অংশ+কুসুম। কুসুম ভাল করে ফেটিয়ে নিয়ে এর মধ্যে অলিভ অয়েল দিন।ডিম ও তেল ভাল করে মিশিয়ে চুলে লাগান।
যদি পেস্টটি বেশি আঠালো মনে হয় বা লাগাতে সমস্যা হয় তাহলে এর মধ্যে কয়েক ফোঁটা পানি যোগ করুন। ভাল ফল পেতে প্যাকটি ১ ঘন্টার বেশি সময় মাথায় রাখুন। গোসলের সময় প্রথমে গরম পানি দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নিন যাতে তেল ও ডিম বের হয়ে যায়। তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন।শ্যাম্পু করে চুলে পানি দিলে আপনি পার্থক্য বুঝতে পারবেন সেটার জন্য চুল শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করা লাগবে না।

টিপস: ১।যদি আপনার চুল রুক্ষ না হয়ে অন্য প্রকৃতির হয় তবে জেনে নিন ডিমের সাথে কোন তেল দিলে কি হয়। এটি আপনাকে তেল বাছাই করতে সাহায্য করবে। *যোযোবা অয়েল:তৈলাক্ত চুল স্বাভাবিক করতে।

২।যদি আপনার চুল অতিরিক্ত রুক্ষ,ভঙ্গুর ও খসখসে হয় তবে এই প্যাকে আরো কিছু জিনিস মিশিয়ে নিন। মধু,অ্যালোভেরা জেল,দুধ ও পাঁকা কলা। এগুলো চুল নরম ও কোমল করতে অনেক সাহায্য করে।

৩।যদি আপনার হাতের কাছে অলিভ অয়েল না থাকে তবে পুরো ডিমটি ফেটিয়ে মাথায় লাগান। ১৫-২০ মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। এটি আপনার চুলকে প্রাকৃতিক ভাবে মস্চারাইজ করবে ও চুলে কন্ডিশোনারের কাজ করবে

*আমন্ড অয়েল:স্বাভাবিক চুল কে শুষ্ক করে। *নারিকেল তেল:শুষ্ক চুলকে স্বাভাবিক করে।
আপনি নিজের চুলের ধরণ অনুযায়ি তেল ব্যবহার করুন।না জেনে অন্যের কথায় কিছু ব্যবহার করবেন না।অন্যের চুলে যেটা ভাল কাজ করেছে সেটা আপনার জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।ত্বকের মতো চুলেরও অনেক ধরণ আছে।তাই ত্বকের ক্ষেত্রে যেমন আপনি সচেতন তেমন নিজের চুলের যত্নেও সচেতন হোন।