নখ পরিচর্যার ৮টি সহজ টিপস

রূপচর্চায় আমরা অনেক  কিছুই ব্যবহার করি  । কিন্তু নখ আমাদের সৌন্দর্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ  হলেও নখের যত্ন আমাদের তেমন একটা ভাবায় না। আমরা মনে করি বাহারি রঙের নেইলপলিশে নখকে রাঙিয়ে দিলেই যথেষ্ট। কিন্তু এই নেইল পলিশের নিচে নখের স্বাস্থ্য কেমন আছে তা হয়তো আমরা  দেখি ও না। ঠিক মতো নখের যত্ন না নিলে তা পাতলা হয়ে ভেঙে যেতে পারে কিংবা ফাংগাস/ব্যাকটেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ঘটতে পারে যা মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুকি। আসুন নখের পরিচর্যায় কিছু টিপস্‌ মেনে চলি।

Goromer Nokher Jotno

Goromer Nokher Jotno | গরমে নখের যত্নে টিপস

১/নখ সবসময় পরিষ্কার ও শুকনো রাখতে হবে। নখ ভেজা থাকলে নখের ভেতর ব্যাকটেরিয়া, ফাঙ্গাশ সৃষ্টি হতে পারে। এ থেকে ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা কয়েক গুণ বেড়ে যায়।

২/বাড়িতেই প্রতিদিন মেনিকিউর করে নিতে পারেন। মেনিকিউর ক্লিপার বা কাটার দিয়ে প্রতিদিন নখ কেটে নেইল ফাইলার দিয়ে শেপ করুন। নখ কাটার আগে হালকা গরম  পানিতে নখ কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। ভেজা নখ নরম থাকে, ফলে কাটতেও সুবিধা হয় এবং নখের কোনো রকম ক্ষতিও হয় না।

৩/অনেক সময় বিভিন্ন কারণে নখ ভেঙে যায়। কোনো কারণে নখ ভেঙে গেলে কখনই টেনে ছিঁড়বেন না। টেনে ছিঁড়লে ব্যথা তো লাগবেই, সেই সঙ্গে নখের শেপও নষ্ট হয়ে যাবে। ভাঙা নখ সাবধানে নেইল কাটার দিয়ে কেটে ফেলুন।

৪/সবসময় নেইলপলিশ না ব্যভার না করাই ভ্লো। এতে নখের স্বভাবিক রং নষ্ট হয়ে যায়। দু-সপ্তাহ পর পর নেইল পলিশ ফেলে কয়েকদিন নখ এমনিভাবে রেখে দিন। এতে নখে আলো-বাতাস লাগে, যা নখ ভালো রাখতে সাহায্য করে।

৫/দাঁত দিয়ে নখ কাটা অথবা নখের চারপাশের চামড়া কাটার বদ অভ্যাস যত তাড়াতাড়ি ছাড়তে পারবেন ততই উপকারী।

৬/প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পেট্রোলিয়াম জেলি অথবা ময়েশ্চারাইজার দিয়ে নখ ম্যাসাজ করা ভালো।

৭/নেইল পলিশ রিমুভার যতটা সম্ভব কম ব্যবহার করুন। বেশি রিমুভার ব্যবহার করলে নখের ন্যাচারাল ময়েশ্চার নষ্ট হয়ে যায় এবং নখ শুষ্ক হয়ে যায়। সপ্তাহে একবারের বেশি রিমুভার ব্যবহার না করাই ভালো।

৮/সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে অবশ্যই ময়েশ্চারাইজিং হ্যান্ড ক্রিম অথবা লোশন ব্যবহার করুন । সাবান হাতের ত্বকের পাশাপাশি নখের ময়েশ্চারও নষ্ট করে দেয়।