বিকেলে চায়ের সাথে একটু “টা” না হলে কি জমে বলুন!  বিকেলে গরম গরম চায়ের সাথে ক্রোশিয়েন্ট ( ফ্রেঞ্চ উচ্চারণ কঁছা)  খেতে কিন্তু দারুণ লাগে। হ্যাঁ মজাদার এই স্ন্যাক্সের রেসিপি নিয়ে হাজির হয়ে গেলাম।তবে চলুন দেখে নেয়া যাক,দারুণ মুচমুচে  ক্রোশিয়েন্টের  পুরো রিসিপি।

দারুণ মুচমুচে ক্রোশিয়েন্ট রেসিপি-

দারুণ মুচমুচে ক্রোশিয়েন্ট রেসিপি

দারুণ মুচমুচে ক্রোশিয়েন্ট রেসিপি

উপকরণ

  • ময়দা – ২ কাপ
  • লবন – ১/২ চা চামচ
  • চিনি – ১ চা চামচ
  • বেকিং পাউডার – ১/৪ চা চামচ
  • মাখন – ১০০ গ্রাম
  • তেল – ২ টেবিল চামচ
  • ডিম – ১ টি ব্রাশ করার জন্য

ক্রোশিয়েন্ট কোলাজ

প্রণালী

ময়দায় লবন,চিনি,বেকিং, তেল দিয়ে ময়ান দিন। পরিমান মত পানি দিয়ে সামান্য শক্ত রুটি / পরোটার মত ডো বানিয়ে নিন। এটাকে পলিথিন এ পেচিয়ে ১/২ ঘন্টা ফ্রিজে রেখে দিন।

এবার ডোটা সামান্য ময়দা ছিটিয়ে বেলে নিন। ১/৪ ইঞ্চি মোটা করে চারকোনা করে বেলে মাঝখান এ মাখনটা গ্রেট করে বিছিয়ে দিন। দুপাশ থেকে ডো ভাজ করে মিলিয়ে দিয়ে আবার পলিথিন এ পেচিয়ে ফ্রিজে রেখে দিন। ১ ঘন্টা পর বের করে সাবধানে সামান্য ময়দা ছিটিয়ে বেলে দ্বিগুণ সাইজ করে দু’বার ভাজ করে নিন।

আবার ফ্রিজে রেখে দিন। এভাবে ৮ থেকে ১০ বার ভাজ করে করে বেলে নিতে হবে। এভাবে ডো দিয়ে পাফ পেস্ট্রি শিট বানিয়ে কয়েক দিন রেখে দেয়া যায়।

আমি আগেরদিন ডো বেলে ফ্রিজে রেখে পরের দিন বেক করেছি। বেক করার আগে বের করে আবার ও বেলে নিয়ে চারধার ছুরি দিয়ে কেটে নিয়েছি। ছবির মত করে কেটে রোল করে ক্রোশিয়েন্ট বানিয়ে নিতে হবে। ইচ্ছে করলে ক্রোশিয়েন্ট এর মাঝে সামান্য জেলি কাস্টার্ড বা পিনাট বাটার দেয়া যায়। ওভেন প্রিহিট করে নিন।

বেকিং প্যান এ সাজিয়ে দিন। ডিম ফেটিয়ে ব্রাশ করে নিন। ২৫০ডিগ্রী সেলসিয়াসে বেক করে নিন। ২০ – ২৫ মিঃ বেক করলেই সুন্দর সোনালি রঙ হলে বের করে নিন। গরম গরম চায়ের সাথে পরিবেশন করুন। শুভ কামনা সকলের জন্য।